Thursday , 29 July 2021
ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » নাঙ্গলকোটে বাবা ভয় দেখিয়ে নিজ মেয়েকে ধর্ষণ

নাঙ্গলকোটে বাবা ভয় দেখিয়ে নিজ মেয়েকে ধর্ষণ

নাঙ্গলকোট প্রতিনিধি:

কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলায় বাবা কর্তৃক নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মেয়ে তানজিনা আক্তার বৈশাখী বাদী হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ফারুক মিয়া (৩৯)কে ৩জুলাই শুক্রবার রাতে গ্রেফতার করে ।
এমন চাঞ্চলকর ঘটনাটি গত ১২ জানুয়ারী উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের শিহর গ্রামের মৃত  জয়নাল আবেদীনের ছেলে ধর্ষক ফারুক মিয়া (৩৯) এ ঘটনা ঘটায়।
লিখিত অভিযোগে তানজিনা আক্তার বৈশাখী(১৬), পিতা- মোঃ ফারুক মিয়া, মাতা- সামছুন্নাহার, সাং- শিহর(বাইদা বাড়ি) পোঃ সিজিয়ারা বাজার,থানা-নাঙ্গলকোট, জেলা-কুমিল্লা বলেন আমি ১০ম শ্রেণীতে পড়াশুনা করি। গত ০৭/০১/২০২১ ইং তারিখে আমার নানার বাড়ীতে বেড়াতে যাই। নানার বাড়িতে বেড়ানো অবস্থায় আমার বাবা মোঃ ফারুক মিয়া ইং ১২/০১/২০২১ তারিখ রাত্র অনুমান ৮.৩০ ঘটিকার সময় আমার নানার বাড়িতে আসে। আমাকে এবং নানী সহ মামাকে জানান যে, আমার বিবাহের কথাবার্তা ঠিক হয়েছে। ১৩/০১/২০২১ ইং তারিখ দুপুর ১২.০০ ঘটিকার সময় আমাকে ছেলে পক্ষ দেখতে  আসবে, এখন তুমি আমার সাথে বাড়িতে চল। তখন আমি আমার জামা কাপড়ের ব্যাগ গুছিয়ে আমার বাবার সাথে  রাত্র অনুমান ০৯.১০ ঘটিকার সময় ব্যাটারি চালিত(অটোরিক্সা) যোগে শিহর বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হই। পরে তিনি আমাকে বাঙ্গড্ডা বাজারে নিয়ে আসিয়া আমাকে ৩তলা বিশিষ্ট একটি বিল্ডিং এ উঠায় এবং ৩য় তলায় উত্তর পাশের রুমে বসাইয়া রাখে। আমাকে রুমে রেখে দরজা লাগিয়ে তিনি বাহিরে চলে যায়, অনুমান ১৫ মিনিট পর পান, চিপস ও আমার জন্য দুইটি থ্রি পিস নিয়ে আসে এবং থ্রি-পিস দুইটি আমার হাতে দিয়ে বলে এগুলো পছন্দ হয়েছে কিনা দেখ, আমি থ্রি-পিস পছন্দ হয়েছে কিনা দেখার মধ্যে ব্যস্ত থাকায় ঘটনার রাত্র অনুমান ১০.৪৫ ঘটিকার সময় বাবি আমাকে পড়নের কাপড় খুলে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। আমি শোর চিৎকার করিতে চাইলে আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। আমাকে সে রুমের ভিতরে রাখিয়া পরের দিন সকাল অনুমান ৭.০০ ঘটিকা পর্যন্ত একাধিকবার ধর্ষণ করে। সকাল বেলা অনুমান ০৮.০০ ঘটিকার সময় অটোরিক্সা যোগে বিবাদী আমাকে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন এবং গাড়ির মধ্যে বসে আমার হাত তার মাথায় দিয়ে কসম কেটে বলে এ ঘটনার কথা কারো কাছে বলবি না এবং তোর মাকে ও বলবি না, যদি কারো কাছে বল, তাহলে তোকে ও তোর মাকে ”দা” দিয়ে কুপিয়ে মেরে ফেলবো। বাড়ীতে যাওয়ার পর বিবাদীর হুমকির কারনে আমি চিন্তামগ্ন থাকার কারনে আমার মাতা আমাকে সব সময় চিন্তাযুক্ত দেখে এর কারণ জানতে চায়। আমি আমার মায়ের কাছে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত বলি। আমার মা বিবাদীকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে তাদের মধ্যে প্রচুর ঝগড়া হয়। আমার মা বিবাদীর সাথে রাগ করে এবং আমি ও আমার মাতা নানার বাড়িতে চলে যাই। নানার বাড়ি থেকে আমার মামা ও নানী আমার বাবার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে কিন্তু বাবা ঘটনার বিষয়ে কোন কর্নপাত করে না। আমার বাবা একজন অসৎ চরিত্রের লোক। তিনি আমার মাতা সহ আরো ০২টি বিবাহ করিয়াছে। আমার পিতা হয়ে আমাকে ধর্ষণ করায় আমি তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রার্থনা করিতেছি। আত্মীয় স্বজনের সাথে আলোচনা করে থানায় এসে এজাহার দায়ের করিতে বিলম্ভ হয়।
গতকাল রাতে ধর্ষিতা মেয়েটির বাবা ধর্ষক ফারুক মিয়া কে আটক করে নাঙ্গলকোট থানার পুলিশ।
এদিকে এলাকাবাসী বলেন, ধর্ষক ফারুক মিয়া আগে থেকে এলাকায় মাদক, ইভটিজিং এর সাথে জড়িত। আমরা এ ঘটনায় ধর্ষক এর ফাঁসি চাই।
এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার অফিসার ইনচার্জ আ,স,ম,আব্দুর নূর  জানান, ধর্ষণ এখন ঘরে ঘরে পৌছে গেছে। বাবার কাছেও নিজ মেয়ের ইজ্জতের নিরাপত্তা নেই। যার বাস্তব প্রমান ধর্ষক ফারুক মিয়া। ধর্ষক  ফারুক মিয়া বিষয়টি স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে মামলার সকল কাগজপত্র তৈরি করে কুমিল্লা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষা নিরিক্ষা করার জন্যে মায়ের হেফাজতে দেওয়া হয়েছে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*