ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » উপজেলার খবর » উখিয়ায় চোরাচালান গডফাদার নইব্ব্যাকে ধরিয়ে দিলে ১০ লাখ টাকা পুরস্কার!

উখিয়ায় চোরাচালান গডফাদার নইব্ব্যাকে ধরিয়ে দিলে ১০ লাখ টাকা পুরস্কার!

উখিয়া প্রতিনিধি:
কক্সবাজারে এই প্রথম কোন রোহিঙ্গাকে ধরিয়ে দিতে পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।যাকে ধরিয়ে দিতে পোস্টার ছাঁটানো হয়েছে,সে মিয়ানমার পালানো রোহিঙ্গা নবী হোসেন বাহিনীর প্রধান নবী হোসেন।সে সীমান্তের ইয়াবা-মাদক ও চোরাচালানের গডফাদার।
কক্সবাজার-৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মেহেদী হোসাইন কবির বলেন, ‘নবীকে ধরতে পারলেই যে মাদক পাচার বন্ধ করা সম্ভব হবে তা নয়। তবে তার কাছে থাকা তথ্য থেকে অনেক কিছু জানা সম্ভব। তাই পুরস্কার ঘোষণা করে পোস্টার লাগানো হয়েছে। কোনো রোহিঙ্গাকে ধরতে এটিই প্রথম পুরস্কার ঘোষণা।’বিজিবি জানিয়েছে, অস্ত্রধারী ও ইয়াবা কারবারি রোহিঙ্গা নবী হোসেন ওরফে নইব্বাকে ধরিয়ে দিতে পারলে ১০ লাখ টাকা পুরস্কার দেয়া হবে।
কক্সবাজার-৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মেহেদী হোসাইন কবির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পকেন্দ্রিক অস্ত্রবাজি, ইয়াবা পাচারের একটি বড় অংশের নিয়ন্ত্রণ নবীর হাতে। ক্রিস্টাল মেথ বা আইসের সঙ্গেও নবীর দলের সদস্যদের সম্পৃক্ততা বেড়েছে। নবী এখন বিজিবির প্রধান টার্গেট। তার নামে বিভিন্ন থানায় অস্ত্র ও ইয়াবার একাধিক মামলা আছে।
তাকে ধরতে পারলেই যে মাদক পাচার বন্ধ করা সম্ভব হবে তা নয়। তবে নবীর কাছে থাকা তথ্য থেকে অনেক কিছু জানা সম্ভব। তাই পুরস্কার ঘোষণা করে পোস্টার লাগানো হয়েছে। কোনো রোহিঙ্গাকে ধরতে এটিই প্রথম পুরস্কার ঘোষণা।’
এক সপ্তাহ ধরে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ৩৪টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প ও এর আশপাশের এলাকায় বিজিবির এই পোস্টার দেখা যায়।
এ বিষয়ে কক্সবাজার নাগরিক আন্দোলনের মুখপাত্র এইচ এম এন নজরুল ইসলাম বলেন, ‘শীর্ষ কোনো পলাতক সন্ত্রাসীর ওপর মানসিক চাপ তৈরি করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কখনও কখনও পুরস্কার ঘোষণা করে। রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে ধরতে এমন সিদ্ধান্ত নজিরবিহীন।’
অধিকার বাস্তবায়ন কমিটির (অবাক) আহবায়ক ইন্জিনিয়ার রবিউল হোসাইন বলেন,এমনিতে রোহিঙ্গারা বিষফোড়া হয়ে আছে।তার মাঝে তাদের নানা অপকর্মের কারণে অতিষ্ঠ আমরা। ‘বাংলাদেশে পুরস্কার ঘোষণা করার মতো রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী তৈরি হয়েছে,অবাক লাগছে।যদি এমন সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে ওঠে তাহলে তাদের দ্রুত দমন করা প্রয়োজন।তবে সবচেয়ে বড় দাবি হচ্ছে রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসন করা।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com