Thursday , 18 July 2024
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে বাবাসহ ৪জন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট : অবশেষে মেয়ের মৃত্যু

মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে বাবাসহ ৪জন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট : অবশেষে মেয়ের মৃত্যু


ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:
বিদ্যুৎতের তার ছিঁড়ে প্রায় মাটির সঙ্গেই ঝুলেছিল। সেই তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে চিৎকার করেন শান্তা আক্তার। এ চিৎকার শুনে মেয়েকে বাঁচাতে এসে বাবাসহ আরও ৪জন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়েছে। বাবা মেয়েকে বাঁচানোর শত-চেষ্টা করেও বাঁচাতে পারেননি শান্তা আক্তারকে। অবশেষে ১৫ বছর বয়সী মাদ্রাসা শিক্ষার্থী শান্তা আক্তার মৃত্যুর কাছে হেরে গেল।
সোমবার (৮ মার্চ) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শান্তা আক্তার উপজেলার বুধল ইউনিয়নের চান্দিয়ারা আলগা বাড়ির জজ মিয়ার মেয়ে। সে স্থানীয় একটি মহিলা মাদ্রাসার ছাত্রী। পরিবার সূত্রে জানা যায়, সকালে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে উঠানে পড়ে থাকতে দেখে শান্তা সেই তার সরাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। শান্তা আক্তারের চিৎকার শুনে তার মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে ফখরুদ্দিন(৫৫)ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। ফখরুদ্দিনকে বাঁচাতে গিয়ে একে একে তার স্ত্রী হাসনা বেগম(৪৫)ও ৭বছরের নাতনী সামিয়াও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঝুলে থাকে। 
নিহতের চাচা রাহিম জানান, খবর পেয়ে সবাইকে দ্রুত উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যায়। কিন্তু সবাইকে বাঁচানো গেলেও শান্তাকে বাঁচাতে পারেনি। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মৃত্যুর পর শান্তার লাশ পরিবারের লোকেরা নিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে এখনোও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply