Wednesday , 8 February 2023
E- mail: news@dainiksakalbela.com/ sakalbela1997@gmail.com
ব্রেকিং নিউজ
চুয়াডাঙ্গার একই মাঠে  রাতের আঁধারে পাঁচ  কৃষকের ফসল কর্তন; থানায় অভিযোগ,  শঙ্কিত কৃষক সমাজ ! 

চুয়াডাঙ্গার একই মাঠে  রাতের আঁধারে পাঁচ  কৃষকের ফসল কর্তন; থানায় অভিযোগ, শঙ্কিত কৃষক সমাজ ! 

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গার বদনপুর গ্রামের  মাঠে রাতের আধাঁরে পাঁচ কৃষকের জমির ফসল কর্তন করেছে সংবদ্ধ দূর্বৃত্তরা।পূর্ব শ্রুততার জের ধরে এমন ঘটনা ঘটতে পারেন বলে ধারণা স্থানীয় কৃষক সচেতন মহলের।ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাতে বদনপুর গ্রামের  কুকরোদেয়ার মাঠে।এ ঘটনায় দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশ মাঠ পরিদর্শন করেেন।ফসলের সাথে এমন শত্রুতায় শঙ্কিত, আতঙ্কিত কৃষক সমাজ।
সরোজিনী জেলার দামুড়হুদা উপজেলার সদর ইউনিয়নের বদনপুর গ্রামের  উল্লেখিত  বিস্তৃত  ফসলের মাঠে গিয়ে দেখা যায়, বদনপুর গ্রামের  কৃষক কাইজার পন্ডিতের দুইটি দাগে মোট ৩ বিঘা’র জমিতে ভূট্রা চাষ করেছিলেন যার মধ্যে ভুট্টা ক্ষেতের বিভিন্ন স্থান থেকে  প্রায় ১২ কাটা, মিজান পন্ডিততের ১ বিঘা জমির মধ্যে প্রায় ৬ কাটা, আলম বিশ্বাসের ১ বিঘা জমির ভূট্রার মধ্যে প্রায় ৬ কাটা জমির ফলন্ত  ভূট্রা কর্তন করা হয়েছে।এছাড়াও একই মাঠের কৃষক নুরু ইসলামের ১ বিঘা ড্রাগন গাছের মধ্যে প্রায় ৫ কাটা জমির  মাথা কর্তন সহ মতি বিশ্বাসের ২ বিঘা কলা বাগানের মধ্যে বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায়৮০ টি ফলন্ত কলা গাছ কর্তন করে গেছেন সংঘবদ্ধ দূর্বৃত্তরা।
স্থানীয় কৃষকরা জানিয়েছেন,গত সোমবার রাতের যে কোন সময়ে বাদনপুর কুকরোদোয়া নামক ফসলের মাঠের পাঁচ কৃষকের ভুট্টা, কলা ও ড্রাগন গাছের উপর ধারালো অস্ত্রের তান্ডব চালিয়ে সংঘবদ্ধ দূর্বৃত্তরারা ফসলের ক্ষেতের বিভিন্ন স্থান  কর্তন করে গেছেন।মাঠের কৃষকরা সকলে তাদের জমিতে কাজে আসলে এমন দৃশ্য দেখে জমির মালিক সহ বদনপুর – নাপিতখালি মাঠ রাখালী কমিটির জানানো হয়।পরে কমিটির লোকজন  মাঠে আসেন।তারা আরো জানান,মাঠের পাঁচ জন কৃষকের ফসল কর্তন করা হয়েছে যারা মধ্যে মাঠের ফসল যাতে ধ্বংস বা কর্তন না করতে পারেন তথা কৃষকের উন্নয়ন ও  কল্যানে “মাঠ রাখালী কমিটি ” নামের একটি সংগঠন করা হয়  বদনপুর – নাপিতখালি এ দুটি গ্রামের প্রায় শতাধিক কৃষকদের নিয়ে।তবে এমাঠের  পাঁচ জন ভুক্তভোগী  কৃষকের যে ফসল কর্তন করেছেন দূর্বৃত্তরা সংগঠনটির সভাপতি কৃষক কাইজার পন্ডিত সহ  সংগঠনের তিনটি  সদস্য’র জমি রয়েছেন।
 ভুক্তভোগী কৃষক  কলা চাষি মতি বিশ্বাস বলেন,মাঠের অন্য কৃষক ভাইদের মাধ্যমে  আজ ( ২৭ ডিসেম্বর)  সকলে খবর পাই আমার জমির কলাবাগান কেটে দিয়েছে।খবর শুনে আমি দ্রুত জমিতে গিয়ে দেখি প্রায় ৭৫-৮০ টি ফলন্ত কলা গাছ গোড়া থেকে রাতের আধাঁরে  ধারালো অস্ত্র দিয়ে কাটা হয়েছে, যা জমির বিভিন্ন প্রান্তে পড়ে রয়েছে। তিনি আরো বলেন,বহু কষ্ট একটা ফসল ঘরে উঠেন, সন্তানের মতোই কৃষকেরা তাদের দুচোখের রঙিন স্বপ্ন দেখে ফসল বড় করে তুলেন।কারো সাথে কোন শত্রুতা নাই, এরপরও যদি থাকেন তাহলে গাছের সাথে এমন আচরণ কেন।
 বদনপুর – নাপিতখালি গ্রামের “মাঠ  রাখালি কমিটির সভাপতি, ভুক্তভোগী কৃষক কাইজার পন্ডিতের জানান,অতীতের বিভিন্ন সময়ের মাঠের গাছপালার পাতা, সহ ফসল, সবজি চুরির ছোটখাটা ঘটনা ঘাটতেন গ্রামের মাঠে।পরবর্তীতে উল্লেখিত দুটি গ্রামের কৃষক ভাইদের সাথে আলোচনা করে সকলের পরামর্শে  গত বছরে গঠন করা হয়েছিলেন ” মাঠ রাখালি কমিটি” নামের একটি সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয় আমাকে,যার সদস্য সংখ্যা  রয়েছেন দুটি গ্রামের কৃষক মিলিয়ে প্রায় শতাধিক।তিনি বলেন, কৃষক ভাইদের উন্নয়ন ও কল্যাণে এ সংগঠনটি ফসল চুরি, ঘাস চুরি, মূল্যবান গাছ পালার ডালপালা কর্তন কমে আসেন।বন্ধ হয় গাস কাটতে গিয়ে ভূট্রা চুরির মতোই ঘটনা।বিভিন্ন সময়ে মাঠের গাস,গাছের পাতা প্রভৃতি চুরি হতেন।ফলে  অভিযুক্তদের প্রমাণ সাপেক্ষ কমিটির সকল কৃষক বন্ধুদের নিয়ে পরবর্তীতে এমন কাজ বা করার শর্তে ক্ষমা করা হয়।তিনি আরো বলেন, গত রাতে আমাদের কৃষক ভাইদের ফসলের জমির মাটে সংঘবদ্ধ দূর্বৃত্তরা যে ভাবে দেশিয় অস্ত্র দিয়ে
 কৃষি ও কৃষক ধ্বংস করতে চেষ্টা চালিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ করেছেন  তারা আমার কৃষক বন্ধু’র শ্রুত, সমাজের শ্রুত সর্বোপরি  দেশের শ্রুত।এদেরকে চিহ্নিত পূর্বক কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়ে দামুড়হুদা মডেল থানায় লিখত অভিযোগ করা হয়েছেন।
 দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, ঘটনাটি দুঃখ জনক।জানতে পেরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল।ভুক্তভোগী কৃষকরা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অপরাধীদের চিহ্নিত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবেন।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply