ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » জেলার-খবর » বর্তমান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ সাবেক চেয়ারম্যানের
বর্তমান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ সাবেক চেয়ারম্যানের

বর্তমান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ সাবেক চেয়ারম্যানের

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সদর উপজেলার ১৯নং পুর্ব চরমটুয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ফয়সাল বারি চৌধুরী আমার সম্মানহানির জন্য গভীর ষড়যন্ত্র করছেন বলে অভিযোগ করেছেন একই ইউনিয়নের ভূক্তভোগী সাবেক চেয়ারম্যান মো: নূরুল আলম।

নূরুল আলম অভিযোগ করে বলেন, গত ২৪সেপ্টেম্বর চেয়ারম্যান ফয়সাল বারির বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে এলাকার সাধারণ জনগন বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন। যে মানববন্ধনে আমার কোনো যোগসাজশ কিংবা উপস্থিতিও নেই। মানববন্ধনে সাধারন জনগন তার বিরুদ্ধে ১০টাকার কার্ডে অর্থ আদায়ের অনিয়ম, ভিজিএফ কার্ডে জালিয়াতি, জমি দখল, খামার দখল, ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তাকে চাকুরী থেকে বের করে দেয়ার চাপ প্রয়োগে ৪মাসে ২লক্ষ ২০বিশ হাজার টাকা আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অনিয়ম এর কথা তুলে ধরেছেন, এতে তো আমার করার কিছু নেই, সাধারন জনগন ফয়সাল বারির অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হয়ে উঠেছে, আমি কি করবো।

অপরদিকে , ২৪ সেপ্টেম্বরের অনুষ্ঠিত মানববন্ধনের প্রতিবাদে ২অক্টোবর মানববন্ধন ‍ও প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেন পূর্বচরমটুয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ফয়সাল বারি চৌধুরী। মানববন্ধনে তিনি ও তার অনুসারিরা সাংবাদিকদের বলেন, সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আলম দলকে ব্যবহার করে ইউনিয়নের সরকারি জায়গা থেকে বালু উত্তোলন, মানুষকে বিদ্যুৎ দেওয়ার নামে টাকা আদায় করে যাচ্ছেন। তার এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে সাধারণ জনগন ফুঁসে উঠেছে।

অপরদিকে, অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে  সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত বর্তমান চেয়ারম্যান ফয়সাল বারির প্রতিটি অভিযোগ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান ফয়সল বারী চৌধুরীর বিরুদ্ধে একাধিক অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। এখন ফয়সাল বারি নিজেকে জনরোষানলের হাত থেকে বাঁচাতে এবং ওই ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচারসহ টাকা দিয়ে লোক ভাড়া করে এনে মিথ্যে মানববন্ধনও করেছে। ২৪তারিখ মানববন্ধন সম্পন্ন হওয়ার পর রাতে বাড়িতে ঢুকে ফয়সাল বারির অনুসারিরা আমার এলাকার মাসুদ নামের একটি ছেলেকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে, ছেলেটি এখন ঢাকা মেডিকেল মৃত্যুর সাথে লড়ছে, আমি তদন্ত সাপেক্ষে এই ঘটনারও সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

অপরদিকে এলাকার সাধারন ভুক্তভোগী জনগন জানান, সাবেক ও বর্তমান দুই চেয়ারম্যানের দ্বন্ধের জেরে আমরা পূর্ব চরমটুয়াবাসী শংকায় দিন কাটাচ্ছি। আশা করছি খুব শীঘ্রই দুই চেয়ারম্যানের বিবাদমান সমস্য নিরসনের মাধ্যমে আমরা একটি শান্তির চরমটুয়া ফিরে পাবো।

সুধারাম থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আনোয়ার হোসেন জানান, দুই চেয়ারম্যানের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের কথা আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয়কে জানিয়েছি। তবে দুই পক্ষের কেউই এখন পর্যন্ত আমাদের লিখিত ভাবে কিছু জানায়নি, আইনি কিছু থাকলে আমরা অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিব।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com