ব্রেকিং নিউজ
Home » দৈনিক সকালবেলা » বিভাগীয় সংবাদ » জেলার-খবর » বন বিভাগের উদ্যোগে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে মুজিব শতবর্ষে রোপণ করা হবে এক লক্ষ গাছের চারা
বন বিভাগের উদ্যোগে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে মুজিব শতবর্ষে রোপণ করা হবে এক লক্ষ গাছের চারা

বন বিভাগের উদ্যোগে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে মুজিব শতবর্ষে রোপণ করা হবে এক লক্ষ গাছের চারা

নোয়াখালী থেকে আব্দুল বাসেদ : নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বন বিভাগের উদ্যোগে এক লক্ষ বিভিন্ন প্রজাতির চারা রোপণের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে।
“মুজিবশত বর্ষ অঙ্গীকার করি, সোনার বাংলা সবুজ করি” এই স্লোগানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকি উপলক্ষে ২০২১-২০২২ ইং অর্থ বছরে টেকসই বন ও জীবিকা প্রকল্পের আওতায় নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার এসএফপিসি উপকূলীয় বন বিভাগের আয়োজনে ১০০ সিডগিং কিলোমিটার (এক লক্ষবনজ, ফলদ-তেযজচারা রোপণের মাধ্যমে) স্ট্রীপ বাগান সৃজনেরনির্মিত স্থান নির্বাচিত করা হয়। সুবর্ণচর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিদর্শন করেন বন বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা মোঃ ফরিদ মিঞা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা সহকারী বন সংরক্ষক কর্মকর্তা কাজী তরিকুর রহমান, লক্ষ্মীপুর জেলার সহকারী বন সংরক্ষক কর্মকর্তা মোঃফিরোজ আলম চৌধুরী, সুবর্ণচর উপজেলা বন কর্মকর্তা মোঃ মোশাররফ হোসন সহ আরো অনেকে। পরিদর্শন কালে জেলা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃফরিদ মিঞা জানান, স্ট্রীপ বাগান সৃজনের জন্য নির্বাচিত স্থান সমূহ বনায়নের জন্য খুবই উপযোগী, আশা করি আমরা সকল বাগান সৃজন করতে সক্ষম হব এবং ১০০ কি.মি. বাগান সৃজনের মাধ্যমে স্থানীয় দরিদ্র জনগোষ্ঠী অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী করতে সম্ভব হবো। ১০ থেকে ২০ বছর পরে যখন বৃক্ষ কর্তন করা হবে তখন ৫৫% টাকা পাবে উপকার ভোগীরা, ২০% টাকা পাবে ভূমি মালিক। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ পাবে ৫% টাকা, ১০% টাকা পাবে বন বিভাগ এবং ১০% টাকা পুনঃ বনায়নের জন্য রাখা হবে। এর ফলে এক দিকে যেমন দরিদ্র বিমোচন হবে অপর দিকে বনায়নের মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন দরিদ্র বিমোচনসহ পরিবেশের ভারসাম্যতা রক্ষা পাবে।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com