ব্রেকিং নিউজ
Home » জাতীয় » সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা, প্রয়াত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের জমি দখলে নিল অনলাইন গ্রুপ

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা, প্রয়াত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের জমি দখলে নিল অনলাইন গ্রুপ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
আওয়ামীলীগ সরকারের সাবেক ও প্রয়াত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের প্রায় দুই একর জমি জাল দলিলের মাধ্যমে দখল নিয়েছে ডেভলপার্স কোম্পানি অনলাইন গ্রুপ। থাইল্যান্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত জুলাইতে মৃত্যুবরণ করেন সাহারা খাতুন। তার মরদেহ দেশে পৌছানোর দিনই তার পৈতৃক জমিটি দখলে নেয় অন-লাইন গ্রুপের এমডি খান মো. আকতারুজ্জামান। শুধু তাই নয়, ঢাকার মানিকদী-মাটিকাটা এলাকার আরো শতাধিক নিরীহ মানুষের জমি ভুয়া কাগজপত্র তৈরির মাধ্যমে জমি ক্রয়-বিক্রয় করে অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়ে। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন এসব কথা তুলে ধরেন ভুক্তভোগীরা।
সংবাদ সম্মেলনে প্রয়াত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের ভাতিজা আনিছুর রহমান বলেন, এই জমিটি আমাদের দাদার সময় থেকে আমাদের দখলে আছে। কিন্তু ভুয়া দলিল করে জমিটি একাধিকবার দখলের চেষ্টা চালায় অনলাইন গ্রুপ। এ নিয়ে আদালতে মামলা চলছে। আমার ফুপি সাহারা খাতুন কোন ধরনের দলীয় ক্ষমতা প্রয়োগ না করে আইনের আইনের দারস্থ হন। কিন্তু তার লাশ থাইল্যান্ড থেকে যেদিন দেশে আনলাম, সবাই যখন শোকহত সেই সুযোগে ওই দিনই জমিটি দখলে নেয় আকতারুজ্জামান।
সংবাদ সম্মেলনে আরেক ভুক্তভোগী ফিরোজ আলী মন্ডল জানান, ঢাকার মানিকদী-মাটিকাটা এলাকার লজিং শিক্ষক থেকে অন-লাইন গ্রুপের এমডি খান মো. আকতারুজ্জামান আজ হাজার কোটি টাকার মালিক। এই অবৈধ সম্পদ অর্জনের ক্ষেত্রে তিনি রিজেন্ট হাসপাতাল মালিক শাহেদের পথ ব্যবহার করেন। আকতারুজ্জামান বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তার ব্যবসায়িক পার্টনার ও আত্মীয় এবং তার সাথে বিভিন্ন ধরনের ছবি উঠিয়ে তার অফিসে প্রদর্শন করে এবং সেই ছবি দেখিয়ে আমাদেরকে হুমকি প্রদান করেন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রধান তার আত্মীয়, মেজর জেনারেল, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তার অফিসে নিয়মিত এসে বসেন, ডিজিএফআই, এসএসএফ এর প্রধান তাঁর ব্যবসায়িক পার্টনার ও র‌্যাবের কর্মকর্তা তাঁর ব্যবসায়িক বন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব তাঁর আত্মীয় হয় বলে ভুকবতভোগীদের ভয় দেখান। হুমকি দিয়ে সে বলে তোরা কেউ আমার কোন ক্ষতি করতে পারবি না বরং তোদের ক্ষতি হবে।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্য ভুক্তভোগীরা জানান, অন-লাইন গ্রুপের এমডি খান মো. আকতারুজ্জামান মাটিকাটা এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব তৈরি করেছে এবং এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘœ ঘটাচ্ছে। নিরীহ প্রকৃতির লোকজনকে প্রতারিত করে মামলার জালে বন্দি করে সর্বশান্ত করে দিচ্ছে। আবার যাদের কাছে জমি বিক্রি করছে তাদের জমির সীমানা প্রাচীর ভেঙে রাস্তা বানাচ্ছে। এসব ভুক্তভোগীদের মধ্যে তফসিলের ভূমির মালিকগণ সামরিক বাহিনী, প্রজাতন্ত্র ও বেসকারী প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পদবীর কর্মকর্তা কর্মচারীরাও রয়েছেন।
বিএনপি-জামায়াত সরকারের আমলে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের প্রয়াত মেয়র সাদেক হোসেন খোকার পিএস সিদ্দিকুর রহমান ওরফে মান্নার সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে মানিকদী-মাটিকাটা এলাকায় নিজস্ব চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে। তার নির্দেশে সন্ত্রাসী বাহিনী রাতের আঁধারে সাইনবোর্ড লাগিয়ে ও বালি ভরাট করে জমি দখল করে নেয়। সেই সময় তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা চলমান আছে। ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট থানাসহ অন্যান্য থানায় তার বিরুদ্ধে প্রায় শতাধিক জিডি ও মামলা আছে। আাকতারুজ্জামানের অপকর্ম সম্পর্কে দৈনিক নয়া দিগন্ত (২১ নভেম্বর, ২০০১), দৈনিক ইত্তেফাক (২৭ নভেম্বর, ২০১১), দৈনিক ইনকিলাব, দৈনিক ভোরের কাগজ (২৮ নভেম্বর, ২০১১), দৈনিক নওরোজ (৪ নভেম্বর, ২০১১) সহ বিভিন্ন পত্রকিায় নিউজ হয়। এখন পুলিশ ও র‌্যাবের নিকট অভিযোগ দায়ের করেও প্রতিকার না পেয়ে ভুক্তোভোগীরা সংবাদ সম্মেলন করেন। আকতারুজ্জামানের ভয়ে তারা এলাকায় আতঙ্কে দিন যাপন করছে ও চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। দুদক, পুলিশ, র‌্যাব ও অন্যান্য গোয়েন্দা বাহিনীর মাধ্যমে প্রকাশ্যে ও গোপনীয়ভাবে তদন্ত করলে ভুক্তভোগী জনগণ সাক্ষ্য প্রদান করবে এবং সকল অভিযোগের সত্যতা জানা যাবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান প্রায় ৯৮ জন ভুক্তভোগী।

About Syed Enamul Huq

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*